ওসি প্রদীপের বিরুদ্ধে বোনের অভিযোগ
Home » ওসি প্রদীপের ‘সহযোগী’ রোহিত আটক
অপরাধ এক নজরে বৃহত্তর চট্টগ্রাম ব্রেকিং নিউজ সব খবর

ওসি প্রদীপের ‘সহযোগী’ রোহিত আটক

Spread the love

কক্সবাজার: মেজর সিনহা মো. রাশেদ খান হত্যা মামলায় টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমারের সহযোগী
কনস্টেবল রুবেল শর্মাকে আটক করেছে র‌্যাব

সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সকালে তাকে আটক করা হয়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, সিনহা হত্যাকাণ্ডে টেকনাফ থানার কনেস্টবল রুবেল শর্মার প্রাথমিকভাবে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। এ জন্য তাকে গ্রেফতার করতে বিজ্ঞ আদালতে আবেদন করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের মেরিন ড্রাইভের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশ কর্মকর্তা লিয়াকত আলির গুলিতে নিহত হন মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ঘটনার পর পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় দুটি মামলা করে। আর রামু থানায় করে একটি মামলা।

পরে ৫ আগস্ট কক্সবাজার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হত্যা মামলা করেন সিনহার বড় বোন শারমিন শাহরিয়া ফেরদৌস। এতে ৯ জনকে আসামি করা হয়। তারা হলেন, টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাস, বাহারছড়া শামলাপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের প্রত্যাহার হওয়া পরিদর্শক লিয়াকত আলি, এসআই নন্দদুলাল রক্ষিত, এসআই টুটুল, এএসআই লিটন মিয়া, পুলিশ কনস্টেবল সাফানুর রহমান, আবদুল্লাহ আল মামুন, মো. মোস্তফা ও কামাল হোসেন। এদের মধ্যে আসামি টুটুল ও মোস্তফা পলাতক রয়েছেন।

এই মামলায় মোট ১৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) সদস্য তিনজন। তারা হলেন- এএসআই শাহজাহান, কনস্টেবল মোহাম্মদ আবদুল্লাহ ও কনস্টেবল রাজীব। এই তিনজনই আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

অন্য তিন আসামি হলেন- পুলিশের দায়ের করা দুটি মামলার সাক্ষী টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের মারিশবুনিয়া এলাকার বাসিন্দা মো. নুরুল আমিন, মো. নেজামুদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াছ।

এছাড়া, পুলিশের দায়ের করা মামলায় দুই আসামি সিনহা রাশেদের দুই সহযোগী সাহেদুল ইসলাম সিফাত এবং আরেক সহযোগী শিপ্রা দেবনাথ জামিনে মুক্ত হন।

বিএনএ/এমএইচ,এসজিএন