ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের
Home » করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়াল :৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি
করোনাভাইরাস টপ ফোর ভারত সব খবর

করোনা ভ্যাকসিন ট্রায়াল :৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি

বিশ্ব ডেস্ক: কোভিড ভ্যাকসিন ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারী গুরুতর অসুস্থ এক ব্যক্তি ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের কাছে ৫ কোটি রুপি ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। অন্যদিকে  সিরাম ইনস্টিটিউট  এটিকে দূরভিসন্ধিমূলক আখ্যাদিয়ে লোকটির বিরুদ্ধে  ১০০ কোটি রুপিরও বেশি ক্ষতিপূরণ দাবি করা হবে বলে পাল্টা হুমকি দিয়েছে। খবর বিবিসির।

যে ব্যক্তি সিরাম ইনস্টিটিউটকে ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনি নোটিশ দিয়েছেন, ৪০ বছর বয়সী এ ব্যক্তি দক্ষিণ ভারতের চেন্নাইয়ের বাসিন্দা এবং গত ১লা অক্টোবর তার শরীরে পরীক্ষামূলক ভ্যাকসিন প্রয়োগ করার পর তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন বলে নোটিশে দাবি করা হয়।

তিনি যে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে কোভিডের ওই টিকা সম্পূর্ণ ”নিরাপদ” বলে তাকে সিরামের পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছিল। ফলে তিনি ধরেই নিয়েছিলেন এই টিকার তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

তিনি যে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন, তাতে বলা হয়েছে কোভিডের ওই টিকা সম্পূর্ণ ”নিরাপদ” বলে তাকে কোম্পানির পক্ষ থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছিল। ফলে তিনি ধরেই নিয়েছিলেন এই টিকার তেমন কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

ওই ব্যক্তির স্ত্রী ‘দ্য হিন্দু’ পত্রিকাকে বলেছেন, তার স্বামী ”মানুষের সেবা করার ভাবনা” থেকেই ওই ট্রায়ালে অংশ নেন।

কিন্তু এখন তারা সিরাম ইনস্টিটিউটের ওই টিকার ট্রায়াল ও উৎপাদন বন্ধ করার দাবি জানান।

তার আইনজীবী রাজারাম জানান, টিকা প্রয়োগের পর থেকেই ওই ব্যক্তির সাঙ্ঘাতিক মাথার যন্ত্রণা শুরু হয়ে যায়, তিনি তখন কোনও প্রশ্নেরও উত্তর দিতে পারছিলেন না।

‘অ্যাকিউট নিউরো এনসেফ্যালোপ্যাথি’ রোগেও তিনি আক্রান্ত হন বলেও জানিয়েছেন ওই আইনজীবী।

এদিকে এই আইনি নোটিশের খবর সংবাদমাধ্যমে আসতেই রবিবার রাতে সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে প্রেস বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়, ওই ব্যক্তির দাবি ”সম্পূর্ণ দুরভিসন্ধিমূলক” এবং তার দেওয়া তথ্যও পুরোপুরি ভ্রান্ত।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ১০০ কোটি রুপিরও বেশি ক্ষতিপূরণ দাবি করে পাল্টা মামলা করা হবে।