Home » রিয়ার ‘দ্বিতীয় মোবাইল’ ঘিরে অজানা রহস্য
এক নজরে বিনোদন সব খবর

রিয়ার ‘দ্বিতীয় মোবাইল’ ঘিরে অজানা রহস্য

Spread the love

বিনোদন ডেস্ক: বিলাসী জীবন যাপন ছেড়ে জেলখানার চাটাইয়ে ঘুমাতে হচ্ছে মাদক মামলায় আটক অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীকে। মাদক মামলায় রিয়ার জামিন আবেদন নাকচ হয়ে যাওয়ায় তাকে অন্তত ২ সপ্তাহ কারাগারে কাটাতে হবে।

এ দিকে মামলার তদন্তে বেরিয়ে আসছে নানা তথ্য, মাদক কারবারি ও পাচারকারীদের সঙ্গে তার মায়ের মোবাইল দিয়ে নিয়মিত যোগাযোগ করতেন এ অভিনেত্রী। মামলার তদন্তকারীরা কিছু মাদক ও মাদক সেবনের সরঞ্জাম পেয়েছে। যা মামলার আলামত হিসেবে রেখেছে।

সূত্রের খবর, মামলার তদন্তের স্বার্থে নিজের মোবাইল হস্তান্তর করলেও তার মায়ের মোবাইলের ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি। তার নিজের বাকি একটি মোবাইলও জমা দেয়নি। পরে তার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ল্যাপটপসহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। সেখানে ছিলো রিয়ার দ্বিতীয় মোবাইল সেটটি। যেটিতে তার মায়ের নামে রেজিস্ট্রেশন করা। সেই মোবাইল থেকেই বেরিয়ে আসে বিস্ফোরক তথ্য।

জানা যায়, মায়ের নামে যে মোবাইলটি রেজিস্ট্রার করা হয়েছে, তার মাধ্যমেই মাদকের কারবারী এবং পাচারকারীদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ করতেন রিয়া। সেখান থেকেই মাদক কারবারীদের সঙ্গে রিয়ার বিভিন্ন কথপোকথন প্রকাশ্যে আসতে শুরু করে।

এদিকে এনসিবির জিজ্ঞাসাবাদের সময় সারা আলি খানের নাম করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। রিপোর্টে প্রকাশ, সারা যে মাদক কারবারী এবং পাচারকারীদের সঙ্গে যোগাযোগ করতেন, রিয়াও তাঁদের মাধ্যমে বিভিন্ন নেশার দ্রব্য আমদানি করতেন। তবে সারার ফোনের তালিকায় কোন কোন মাদক কারবারী এবং পাচারকারী রয়েছেন, সে বিষয়ে তল্লাসি শুরু করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো।

গত ১৪ জুন মুম্বাইয়ের ফ্ল্যাট থেকে তরুণ বলিউড তারকা সুশান্ত সিং রাজপুতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক ও চূড়ান্ত তদন্তে ‘আত্মহত্যাই’ বলা হয়েছে। তবে শুরু থেকেই ‘সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত সিবিআই করুক’,নানা মহল থেকে এমন দাবি উঠেছিল। এরপর শীর্ষ আদালতের নির্দেশে একযোগে মামলার তদন্তে নামে সিবিআই।

বিএনএ/এমএইচ