Home » মালিতে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা নিরাপদে : আইএসপিআর
প্রতিরক্ষা

মালিতে বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীরা নিরাপদে : আইএসপিআর

Spread the love

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালিতে রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছে। দেশটির প্রেসিডেন্টসহ কয়েকজন মন্ত্রীকে বিদ্রোহীরা গত মঙ্গলবার গ্রেপ্তারের পর সেখানকার পরিস্থিতি চরমে উঠেছে। তবে মালিতে অবস্থানরত বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীসহ সব জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বর্তমানে নিরাপদে রয়েছেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) সহকারী পরিচালক রাশেদুল আলম খান এই তথ্য জানিয়েছেন। বাংলাদেশ থেকে ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে মালিতে প্রথম শান্তিরক্ষী পাঠানো হয়। মালিতে বাংলাদেশের দেড় হাজারের মতো শান্তিরক্ষী মোতায়েন রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী, বিমানবাহিনী, পুলিশ এবং স্টাফ অফিসার।

এদিকে, এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। জাতিসংঘ মহাসচিবের মুখপাত্র স্টিফেন ডুজারিক বুধবার বলেছেন, জাতিসংঘ সবধরনের অশান্তি ও অস্থিতিশীলতার বিরোধী। মালির সংবিধান বিপন্ন হয়ে পড়ার মতো পরিস্থিতি দেখতে চায় না জাতিসংঘ। আইনের শাসন পুনঃপ্রতিষ্ঠার আহ্বানও জানিয়েছে জাতিসংঘ।বুধবার অনুষ্ঠিত নিরাপত্তা পরিষদের রুদ্ধদ্বার বৈঠকেও মালির ঘটনায় উদ্বেগ ও নিন্দা প্রকাশ করা হয়েছে।

অনতিবিলম্বে মালিতে সাংবিধানিক প্রশাসন কাজ শুরু করবে বলে আশা করছে সিকিউরিটি কাউন্সিল। অর্থাৎ জাতিসংঘ মহাসচিব এবং নিরাপত্তা পরিষদের অভিন্ন ভাষায় মালির ঘটনার নিন্দা জানিয়েছে। প্রসঙ্গত, গত জুলাই থেকে পশ্চিম আফ্রিকার দেশটিতে চরম রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলা চলছে। ওই সময় শুরু হওয়া সরকারবিরোধী বিক্ষোভের সুযোগে মঙ্গলবার দেশটির সেনাবাহিনীর একটি অংশ অভ্যুত্থানের মাধ্যমে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম বৌবাকর কেইতাকে ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য করে।

বিদ্রোহী সেনারা মঙ্গলবার বিকেলে মালির প্রেসিডেন্ট ভবনে হানা দেয় এবং অস্ত্রের মুখে কেইতা ও প্রধানমন্ত্রী বুবু সিসাসহ আরও কয়েকজনকে রাজধানী বামাকোর নিকটবর্তী একটি সামরিক শিবিরে ধরে নিয়ে যায়। তার কয়েক ঘণ্টা পর রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিভিশনে জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক ভাষণে কেইতা পদত্যাগের ঘোষণা দেন এবং সরকার ও সংসদ বিলুপ্ত ঘোষণা করেন।

Source: Bangladesh News Agency(Bna)/Newsbna