বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
Home » তরুণ-তরুণীদের উদ্যোক্তা হওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ -বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী
আইটি-আইসিটি এক নজরে জাতীয় বাংলাদেশ

তরুণ-তরুণীদের উদ্যোক্তা হওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ -বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

Spread the love

বিএনএ, ঢাকা: বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, তরুণ-তরুণীদের চাকরির পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হওয়ার চেষ্টা করা উচিৎ। তখন নিজেরাই অন্যকে চাকরি দিতে পারবে। আমাদের তরুণ-তরুণীরা খুবই মেধাবী। সঠিক নির্দেশনা পেলে তারা দ্রুতই এগিয়ে যাবে।

প্রতিমন্ত্রী শনিবার(৬ সেপ্টেম্বর) অনলাইনে ‘করোনা পরবর্তী সম্ভাব্য মন্দা মোকাবিলায় করণীয়ঃ তরুণদের ভাবনা’ শীর্ষক জাতীয় লেখা প্রতিযোগিতার ভার্চুয়াল পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

নসরুল হামিদ বলেন, করোনার প্রভাবে ব্যবসা-বাণিজ্য ও উৎপাদন খাতের ব্যাপক পরিবর্তন ও স্থানান্তর হচ্ছে। এখানে কৌশলগত ভাবেই তরুণদের সম্পৃক্ত হতে হবে। এজন্য গবেষণায় ও সৃজনশীল কাজে বেশি করে মনোনিবেশ করা প্রয়োজন। গবেষণা ও প্রকল্প বাস্তবায়নে বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল বিশেষ প্রণোদনা প্রদান করে। প্রায় ৩৫০০ ইউনিয়নে ব্রড ব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ রয়েছে। তৃণমূলের তরুণরা এই দ্রুত গতির ইন্টারনেটের সুবিধা নিয়ে নিজেদের সমৃদ্ধি আনতে পারে।  তিনি আরো বলেন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে (এসএমই) সহায়তা, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা ও স্বাস্থ্যখাতকে শক্তিশালীকরণে তরুণদের ভাবনা খুবই সদূরপ্রসারী। তাঁদের এই বাস্তবধর্মী চিন্তা-ভাবনা বাস্তবে প্রয়োগ করা যায় কিনা ভেবে দেখা উচিৎ।

বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মকে কোভিড-১৯ মহামারির সুদূরপ্রসারী প্রভাব থেকে উত্তরণ প্রক্রিয়ায় বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে। কারণ এই পরিস্থিতির দীর্ঘমেয়াদী প্রভাব তরুণ প্রজন্মের ওপরই পড়বে। তাই তাঁদের ভাবনা নিয়ে লেখা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

প্রবাসী শ্রমিকদের সুরক্ষা ও রেমিট্যান্সের ধারাবাহিকতা রক্ষা, তরুণদের চাকরির ব্যবস্থা এবং নতুন কর্মক্ষেত্র তৈরি, ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পে (এসএমই) সহায়তা, কর্মক্ষেত্রে নারীর নিরাপত্তা ও ক্ষমতায়ন, প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সুরক্ষা, টেকসই কৃষিব্যবস্থার নিশ্চয়তা, শিক্ষা ও ডিজিটাল শিখন পদ্ধতিকে উৎসাহিতকরণ, স্বাস্থ্যখাতকে শক্তিশালীকরণ, সামাজিক সুরক্ষা প্রোগ্রামসমূহকে এগিয়ে নেওয়া, রপ্তানি খাতকে পুনরুজ্জীবিতকরণ-এই দশটি ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। সকল গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন আইপিডিসির পক্ষ থেকে দশ হাজার টাকা রিসার্চ গ্রান্ট পাবে এবং সকল গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে ইন্টার্নশিপ করার সুযোগ পাবে।

ইয়ুথ অপরচুনিটিস-এর উদ্যোগে আয়োজিত ভার্চুয়াল এই অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে আইপিডিসি ফাইনান্স-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মমিনুল ইসলাম, ব্রিটিশ কাউন্সিল-এর পরিচালক টম মিশসিওসসিয়া ও ইয়ুথ অপরচুনিটিস-এর সহপ্রতিষ্ঠাতা ওসামা বিন নূর সংযুক্ত থেকে বক্তব্য রাখেন।

বিএনএ/নিউজবিএনএ